অভিভাবকদের জন্য নির্দেশিকা

১।গ্রীষ্মকালে প্রভাতী শাখায় ৭.১৫ মিনিটে সমাবেশ ‍শুরু ক্লাস ৭.৩০ মিনিটে এবং দিবা শাখায় ১২.১৫ মিনিটে সমাবেশ ক্লাস ১২.৩০ মিনিটে ।

২। নির্ধ ারিত সময়ের মধ্যে জরুরি প্রয়োজনে কোন শিক্ষার্থীকে কেবল পিতা-মাতা অথবা অনুমোদিত অভিভাবকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দেয়া হয়।

৩।কোন শিক্ষার্থী ক্যামেরা,মোবাইল ফোন, রেডিও,ক্যাসেট প্লেয়ার, এমপি থ্রি,বাদ্যযন্ত্র বা কোন প্রকার বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ক্লাসে আনতে পারবে না।

৪। শিক্ষা, শিক্ষার্থীর কল্যাণ, শাসন বা অন্য কোন পরামর্শ থাকলে ব্যক্তিগতভাবে প্রধান শিক্ষকের নিকট তা জানানো হয়।

৫।প্রত্যেক পার্বিক পরীক্ষার ফলাফল কেবল অভিভাবকের নিকট প্রদান করা হয়।রিপোর্ট কার্ডের মন্তব্য সম্পর্কে অভিভাবককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হয়।

৬।কোন শিক্ষার্থী প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকলে পরের দিন অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীকে প্রধান শিক্ষকের নিকট এ বিষয়ে লিখিত দরখাস্ত উপস্থাপন করতে হয়।

৭। আপনার সন্তান/পোষ্যের ক্লাসে/শ্রেণিতে উপস্থিতি,পাঠোন্নতি ও আচার-আচারণ সম্পর্কে প্রতি বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠান ছুটির পর শেণি শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা যাবে।

৮।প্রতিদিন অভিভাবক শিক্ষার্থীর ডায়েরী চেক করবেন।

৯।কোন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হলে তাকে পরবর্তী শ্রেণিতে ’প্রমোশন’ দেয়া হবে না এবং এ ব্যাপারে কোন প্রকার সুপারিশ করা যাবে না।

১০।প্রতি পার্বিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষনার নির্ধারিত দিনে রিপোর্ট কার্ড না পেলে শ্রেণি শিক্ষকের নিকট যোগাযোগ করবেন।

১১।রিপোর্ট কার্ড দেয়ার পর স্বাক্ষরান্তে তিন দিনের মধ্যে শ্রেণি শিক্ষকের নিকট ফেরত দিতে হবে।

১২।পিতা-মাতা বা আইনানুগ অভিভাবক ছাড়া অন্য কাউকে প্রতিষ্ঠানে পাঠাবেন না।

১৩।শিক্ষার্থীর কোন ব্যাপারে সাক্ষাতের জন্য লিখিত অনুরোধ জানানোর পর অভিভাবক সাক্ষাৎ  না করলে কতৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হব্যে।

১৪। প্রতিদিন শিক্ষার্থীর ডায়েরি দেখে স্বাক্ষর করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করবেন।

১৫।প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা ,নিয়মকানুন  না মানলে ও অশোভন আচরণ করলে শিক্ষার্থীকে বাধ্যতামূলক ছাড়পত্র(TC) দেয়া হবে।

১৬।দৈনিক পাঠ তৈরী করতে আপনার সন্তানকে উৎসাহ দিন ও সহায়তা করুন।

১৭।অত্র প্রতিষ্ঠানের শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের ক্রমবর্ধমান অনুপস্থিতি রোধকল্পে এবং বিনা অনুমতিতে/পূর্বানুমতি ব্যতিরেকে শ্রেণিকক্ষে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের নিয়মিত উপস্থিত করণের লক্ষে বিনা অনুমতিতে/পূর্বানুমতি ব্যতীরেকে অনুপস্থিত  শিক্ষার্থীর নিকট হতে দিন প্রতি ৫০/- (৯ম ও দশম  শ্রেণিতে ১০০/-) টাকা হারে জরিমানা আদায় করা হবে।

১৮।বর্তমানে সরকারি বিধান অনুযায়ী তিন মাসের বেতন একত্রে ও অন্যান্য পাওনাসহ জানুয়ারী,এপ্রিল,জুলাই ও অক্টোবর মাসের নির্ধারিত দিনে আদায় করা হবে।

১৯।আপনার সন্তানের পোশাক পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ও স্বাস্থের দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখুন।খারাপ পরিবেশ থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করুন।

২০।যিনি নিজেই শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয়ে আনা নেওয়া করেন,তিনি তাকে যথা সময়ে বিদ্যালয়ের গেটে পৌছে দেবেন এবং ছুটির পরে যথাসময়ে নিয়ে যাবেন।

২১।সরকারি বিধিমালা অনুযায়ী বিদ্যালয় কার্যক্রম পরিচালিত হয়।সুষ্ঠুভাবে বিদ্যালয় পরিচালনায় আপনাদের সহযোগিতা একান্ত কাম্য।শিক্ষার্থীর শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সর্বাঙ্গীন কল্যাণে গৃহীত যাবতীয় কাযক্রম বাস্তবায়নের জন্য আমরা অভিভাবক এবং সংশ্লিষ্ট সকলের একান্ত সহযোগিতা কামনা করি।